লকডাউনের শেষদিনে ভিড় বেড়েছে ফেরিঘাটে, কঠোর অবস্থানে পুলিশ

আরো পড়ুন

অনলাইন ডেস্ক : কঠোর বিধিনিষেধের শেষ দিনে সকাল থেকে সড়কে যানবাহন ও মানুষের চলাচল আরও বেড়েছে। সড়ক-মহাসড়কে অবাধে চলছে যানবাহন। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটে ভিড় বেড়েছে।একইসঙ্গে রাজধানীর সড়কের বিভিন্ন স্থানে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের গত ১৩ দিনের তুলনায় আজ আরও কঠোর অবস্থান নিতে দেখা গেছে। চেকপোস্টে ব্যক্তিগত গাড়ির যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি গাড়ির নম্বর লিখে রাখতে দেখা গেছে।

কঠোর বিধিনিষেধের শেষ দিনে আজ সকাল থেকেই যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। সেই সঙ্গে ব্যক্তিগত যানবাহনে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া মানুষের সংখ্যাও বেড়েছে। একই সঙ্গে রাজধানীর চেকপোস্ট গুলোতে হঠাৎ করেই পুলিশকে কিছুটা কঠোর অবস্থান নিতে দেখা গেছে।

আজ বুধবার (১৪ জুলাই) সকালে গাবতলী পুলিশ চেকপোস্টে দেখা যায় ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার ব্যক্তিগত যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। ঢাকার বাইরে যাওয়া সব প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস থামিয়ে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে। যারা সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারছে তাদেরকে যেতে দেওয়া হচ্ছে।

তবে পুলিশ এখানে সব গাড়ির নম্বর লিখে রাখছে। পুলিশ সদস্যরা জানান, সকাল থেকে ঢাকা ছেড়ে বাইরে যাওয়ার ব্যক্তিগত যানবাহনের চাপ গাবতলী এলাকার অনেক বেশি। নানান অজুহাতে এবং সমস্যার কথা বলে লোকজন ঢাকা ছেড়ে বাইরে যাচ্ছে। কয়েকদিন পরেই ঈদ। আগামীকাল থেকে গণপরিবহন চলাচল শুরু করবে। এ সময় ফেরিঘাটে এবং রাস্তায় ভিড় বাড়বে। ভিড় এড়িয়ে আগেভাগে গন্তব্যে পৌঁছার জন্য আজ থেকে ঈদযাত্রা শুরু করেছে।

বাবুবাজার ব্রিজের সামনে থেকেও ঢাকা ছেড়ে যাওয়া ব্যক্তিগত যানবাহনের চাপ বেড়েছে। এখানেও পুলিশ যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে নানান অজুহাত দেখাচ্ছে। যানবাহনের চাপ বেড়েছে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে। লকডাউন শিথিল না হলেও আজ সকাল থেকেই যানবাহনের চাপ বেড়েছে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ফেরিঘাটে। সকাল নয়টা পর্যন্ত এই সেই গাছ দিয়ে কয়েক শো ব্যক্তিগত গাড়ি পার হয়েছে বলে জানা গেছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার সপ্তাহের শেষ দিনে দুপুর থেকেই ঈদযাত্রা শুরু হলে এই ফেরিঘাটের চিত্র একেবারেই বদলে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যানবাহনের চাপ বেড়েছে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে। আজ সকাল থেকেই দৌলতদিয়া ঘাটের দিকে যাচ্ছে প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস। সকাল থেকে পণ্যবাহী ট্রাকের পাশাপাশি পাটুরিয়া ফেরিঘাট থেকে বিপুল সংখ্যক ব্যক্তিগত গাড়ি পাড় করা হয়েছে। ফেরীতে ঢাকায় আসা যানবাহনের মধ্যে গরু ভর্তি ছোট বড় ট্রাকের সংখ্যা বেশি। গরু ভর্তি ট্রাকগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে।

রাজধানীর অন্যান্য সড়কেও স্বাভাবিক যানবাহন চলাচল করছে। মিরপুর রোডের টেকনিক্যাল মোড় এলাকায় পুলিশ চেকপোস্ট তৎপরতা চালিয়েছে, গাড়ি থামিয়ে লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এখানে যানবাহনের চাপ স্বাভাবিক ছিলো। চেকপোষ্টে গাড়ি থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের কারণে দীর্ঘ যানজট দেখা যায়। তবে শাহবাগ, সাইন্সল্যাব, ধানমন্ডি এলাকার সড়কে সকাল ৯ টার দিকে যানবাহনের চাপ কম দেখা গেছে। এখানে চেকপোষ্টে পুলিশ সদস্যরা অবস্থান নিয়ে ব্যক্তিগত যানবাহন থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রেখেছে। তবে রিক্সায় যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে দেখা যায়নি। মহাখালী, বনানী এবং গুলশান এলাকায় আজ সকালের দিকে সড়কগুলোতেও ব্যক্তিগত যানবাহনের চলাচল কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যানবাহন ও মানুষের চাপ বেড়ে যায়।

বিজ্ঞাপনspot_img

বিজ্ঞাপন

spot_img

জনপ্রিয় খবর