বিধিনিষেধ শিথিল হলেই ৪১তম বিসিএসের ফলাফল প্রকাশ

আরো পড়ুন

অনলাইন ডেস্ক : ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার চার মাস পেরিয়ে গেছে। ফলাফল প্রকাশে কয়েক দফা জোর প্রস্তুতিও নিয়েছিল বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। কিন্তু করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় ফলাফল প্রকাশ করতে পারেনি পিএসসি। তবে পিএসসি সূত্র বলছে, ঈদের পর বিধিনিষেধ শিথিল হলেই ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

পিএসসির চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, ‘বিধিনিষেধের মধ্যেও আমরা জরুরি কাজগুলো করছি। এটি কিছুটা শিথিল হলেই অল্প সময়ের মধ্যে ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফলাফল দেবে পিএসসি।’

পিএসসির আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, বিধিনিষেধ শিথিল হলে সর্বোচ্চ এক সপ্তাহ পেলেই পিএসসি ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করবে।

যথাসময়ে ৪১তম বিসিএসের ফল প্রকাশ না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন কয়েকজন প্রার্থী। তাঁরা জানান, এই চাকরির পরীক্ষার ফল সঠিক সময়ে প্রকাশ না হওয়ায় তাঁরা হতাশ হয়ে পড়েছেন। ফল প্রকাশের পর তাঁরা জানতে পারতেন লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি কীভাবে নেবেন। সামনে সেই লক্ষ্য না থাকায় লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতিতে মনোযোগ দিতে পারছেন না। ফল প্রকাশ হলে অন্তত পড়াশোনা ঠিকভাবে চালিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা পেতেন। আরেক ফলপ্রার্থী বলেন, বিসিএসের প্রস্তুতি নিলে অন্য চাকরির পরীক্ষার প্রস্তুতিও নেওয়া যায়। তাই ফল প্রকাশ হলে তাঁদের পড়াশোনায় গতি আসবে বলে তাঁর ধারণা।

করোনার প্রকোপ কমে আসায় এ বছরের ১৯ মার্চ ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেয় বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন। করোনায় পরীক্ষা কীভাবে হবে, সমস্যা হবে কি না, এটা নিয়ে শঙ্কা থাকলেও বেশ ভালোভাবেই যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেওয়া হয় দেশের ৮টি বিভাগীয় শহরে। সেই পরীক্ষার চার মাস হলো। কিন্তু করোনাসহ নানা কারণে পিএসসির পক্ষে এখনো ফল প্রকাশ সম্ভব হয়নি।

২০১৯ সালের ২৭ নভেম্বর ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। এতে বিভিন্ন পদে ২ হাজার ১৩৫ জন কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হবে। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি নেওয়া হবে শিক্ষা ক্যাডারে। এই ক্যাডারে ৯১৫ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এর মধ্যে বিসিএস শিক্ষায় ৯০৫ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বিভাগে ১০ জন প্রভাষক নেওয়া হবে। শিক্ষার পর বেশি নিয়োগ হবে প্রশাসন ক্যাডারে। প্রশাসনে ৩২৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। পুলিশে ১০০ জন, বিসিএস স্বাস্থ্যে সহকারী সার্জন ১১০ জন ও সহকারী ডেন্টাল সার্জন ৩০ জন নেওয়া হবে।

৪১তম বিসিএসে পররাষ্ট্রে ২৫ জন, আনসারে ২৩ জন, অর্থ মন্ত্রণালয়ে সহকারী মহা হিসাবরক্ষক (নিরীক্ষা ও হিসাব) ২৫ জন, সহকারী কর কমিশনার (কর) ৬০ জন, সহকারী কমিশনার (শুল্ক ও আবগারি) ২৩ জন ও সহকারী নিবন্ধক হিসেবে ৮ জন নেওয়া হবে। পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগে পরিসংখ্যান কর্মকর্তা ১২ জন, রেলপথ মন্ত্রণালয়ে সহকারী যন্ত্র প্রকৌশলী ৪ জন, সহকারী ট্রাফিক সুপারিনটেনডেন্ট ১ জন, সহকারী সরঞ্জাম নিয়ন্ত্রক ১ জন, সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল) ২০ জন, সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) হিসেবে ৩ জনকে নেওয়া হবে। তথ্য মন্ত্রণালয়ে সহকারী পরিচালক বা তথ্য কর্মকর্তা বা গবেষণা কর্মকর্তা ২২ জন, সহকারী পরিচালক (অনুষ্ঠান) ১১ জন, সহকারী বার্তা নিয়ন্ত্রক ৫ জন, সহকারী বেতার প্রকৌশলী ৯ জন, স্থানীয় সরকার বিভাগে বিসিএস জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলে সহকারী প্রকৌশলী ৩৬ জন, সহকারী বন সংরক্ষক ২০ জন।

বিজ্ঞাপনspot_img

বিজ্ঞাপন

spot_img

জনপ্রিয় খবর