পাবনার বেড়ায় প্রাকৃতিক গ্যাসের সন্ধান

আরো পড়ুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : পাবনা জেলার বেড়া উপজেলায় নলকূপের পাইপ দিয়ে প্রাকৃতিক গ্যাস বের হচ্ছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (০১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে, উপজেলার চাকলা ইউনিয়নের মিন্টু শেখের (৩৫) এর বসতবাড়িতে নলকূপ বসাতে গেলে এ প্রাকৃতিক গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। বের হওয়া প্রাকৃতিক গ্যাসে আগুন জলছে। এ দৃশ্য দেখতে এলাকার শত শত মানুষ সেখানে গিয়ে ভিড় করছেন।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার চাকলা পূর্বপাড়া গ্রামের মিন্টু শেখের (৩৫) বাড়িতে বুধবার সকাল ১১টার দিকে কয়েকজন মিস্ত্রি নলকূপ বসাতে আসেন। নলকূপ বসানোর সময় মিস্ত্রিরা ৩০ ফুট বোরিং করতেই মাটির নিচে শক্ত কিছুর অস্তিত্ব পান। এক পর্যায়ে পাইপ দিয়ে গ্যাস বের হওয়ার শব্দ হতে থাকে। এ সময় পাইপের মুখে আগুন জালালে আগুন ধরে যায়। পরে মিস্ত্রিরা দ্রুত সেখান থেকে পাইপ উঠিয়ে পাশেই আবারও নলকূপ বসানোর কাজ শুরু করেন। কিন্তু সেখানেও ৩৫ ফুট বোরিং করার পর বিকেল তিনটার দিকে একই ঘটনা ঘটে। প্রথম স্থানের চেয়ে দ্বিতীয় স্থানে গ্যাস বের হওয়ার শব্দ ও আগুনের তীব্রতা আরও বেশি দেখা যায়। এ অবস্থায় নলকূপ বসাতে আসা লোকজন ভয় পেয়ে আগুন নিভিয়ে কাজ বন্ধ করে দেন। পরে বাড়ির লোকজনের মধ্যে এ নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে তাঁরা বেড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনকে খবর দেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে জায়গাটিতে লাল পতাকা টাঙিয়ে দড়ি দিয়ে ঘিরে দেন।
বাড়ির মালিক মিন্টু শেখ জানান, কিছুদিন আগে তিনি ওই স্থানে বাড়ি করার জন্য জায়গা কিনে ঘর তোলেন। এর পর আজ বাড়িতে নলকূপ বসাতে গেলে এই বিপত্তি ঘটে। ঘটনার পর থেকে বাড়ির সবাই আতঙ্কে রয়েছেন বলে তিনি জানান।
ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চাকলা ইউপি চেয়ারম্যান মো. ফারুক হেসেন তাদের আতঙ্ক না হয়ে তাদের ঐ স্থান থেকে দুরে থাকতে বলেন। কোন ধরনের সমস্যা মনে হলে দ্রুত ফায়ার সার্ভিসকে জানানোর পরামর্শ দেন।
বেড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাকৃতিক গ্যাস বের হওয়ার আলামত দেখতে পাই। দুটি জায়গাতেই আমরা চারটি করে খুঁটি পুঁতে ঘিরে দিয়েছি। বিষয়টি আমি ইউএনও মহোদয়কে ফোনে জানিয়েছি।’
এ ব্যাপারে বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহা. সবুর আলী বলেন, ‘ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় জায়গাটি আপাতত সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

বিজ্ঞাপনspot_img

বিজ্ঞাপন

spot_img

জনপ্রিয় খবর